সিনকারা সিরাপের উপকারীতা, সিনকারা কেন সেবন করবেন?

  Generate and Copy Share Link for Earning

সিনকারা সিরাপটি হামদর্দ গ্রুপের একটি পণ্য। সিনকারাতে আছে বিভিন্ন ভিটামিন সমৃদ্ধ গাছ-গাছড়ার নির্যাস। যা হাজারো বছর ধরে শক্তির যোগান দান করে, উদ্দীপনা এবং স্নায়ু ও পেশীর বলবর্ধক হিসেবে প্রচুর ব্যবহৃত হয় এবং বর্ত মানেও ব্যবহার হয়ে আসছে। সিনকারা সম্পূর্ণ গাছ-গাছড়া দ্বারা তৈরী করা হয়। যা দ্রুত রক্তের সাথে মিশে দেহের বিভিন্ন অঙ্গের কোষে পৌঁছে যাওয়ার ক্ষমতা রাখে। সিনকারা সিরাপ বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত করে তার পরে বাজারজাত করা হয়েছে।সিনকারা পরিবারের সকলের জন্য সব ঋতুতে একটি আদর্শক শক্তিবর্ধক ওষুধ হিসাবে সেবন করা যায়।

উল্লেখ্য থাকে যে, সিনকারা শিশুর মেধা বিকাশে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে এবং সিনকারা শিশুর শিক্ষণ ও স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে এটা বিজ্ঞানীরা প্রমান করেছে। মানব দেহের যে কোষগুলো শুকিয়ে গেছে বা কার্যক্ষমতা হ্রাস পেয়েছে সেসব কোষগুলোকে সজিব ও প্রানওবন্ত করতে সিনকারা ম্যাজিকের মত কাজ করে। আসুন জেনে নেয়া যাক আমরা কেন সিনকারা সিরাপ সেবন করবো এবং এর উপকারীতাঃ

উপকারীতাঃ
প্রথমেই বলতে হয় ক্ষুধামন্দা নিয়ে, যাদের কোন খাবারের প্রতি রুচি নেই এবং কোন স্বাদ পান না তাদের জন্য সিনকারা বিশেষ ভাবে উপকার করে থাকে। প্রতিদিন আপনি নিয়ম করে সিনকারা সেবন করলে আপনি নিজেই খাবারের পিছনে দৌড়াতে থাকবেন এটা পরিক্ষীত। যাদের দেহে রক্তের প্রবাহ কম বা রক্তচাপ কম তাদের জন্য সিনকারা উপকারী। সিনকারাতে ব্যবহৃত হয়েছে বড় এলাচ, দারুচিনি, ধনিয়া, লবঙ্গ, গোলাপ, জটামাংসী ইত্যাদি যা গর্ভকালীন মায়েদের জন্য খুবই উপকারী। এছাড়াও মেয়েদের মাসিকের পরে সিনকারা অত্যান্ত উপকারী যা, অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরনের পরে শরীর দূর্বল হয়ে পরে তখন সিনকারা শরীরে স্বাভাবিক শক্তি বা বল ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে। যে সব মায়েরা শিশুকে স্তন্যদান করেন তাদের অনেকের মাঝে দেখা যায় শিশু ঠিকমত দুগ্ধ পাই না তাই সে সব মায়েদের সিনকারা সেবন করা উচিৎ কারন সিনকারা দুগ্ধ বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। সিনকারা এমন একটি ঔষধ যা শিশুর মস্তিষ্কের স্নায়ুকোষ তৈরিতে সহায়তা করে থাকে। বিশেষ পরিক্ষাতে জানা গেছে, সাধারন বাচ্চাদের থেকে সিনকারা সেবন কারী বাচ্চার মেধা বিকাশ ৪৭ শতাংশ বেশি হয়। সিনকারাতে আছে প্রচুর জিংক যা শিশু ও গর্ভবতী মায়েদের জন্য আদর্শ একটি ঔষধ। তাই প্রতিটা গর্ভবতী মায়েদের নিয়মিত সিনকারা সেবন করা উচিৎ। যাদের নিয়মিত ঘুম হয় না, ঘুম কম হবার কারনে মেধা শক্তি লোপ পাওয়া, মেজাজ খিটখিটে হয়ে থাকা, মানসিক দূর্বলতা থেকে মুক্তি পেতে সিনকারা সেবনের কোন জুড়ি নেই। সিনকারা সেবনে রক্তাল্পতার রোগীদের হিমোগ্লোবিন ও আয়রণের মাত্রা কম থাকা সমস্যা থেকে সমাধান করতে সিনকারা ব্যবহৃত হয়ে আসছে। ভারতের একটি গবেষণাতে দেখা গেছে সিনকারা ধুমপানের বিরুদ্ধে কাজ করে থাকে। যারা অতিরিক্ত ধুমপান করে থাকে তাদের নিয়মিত সিনকারা সেবনের ফলে ধুমপান অনেকটা কমিয়ে আনা সম্ভব। বৃদ্ধদের হাতের কবজিতে ব্যাথা, পায়ের পাতা ফুলে ওঠলে সিনকারা সেবন করলে অনেক টা মুক্তি পাওয়া যায়। তাছাড়া বৃদ্ধদের বার্ধ্যক্য রোধে সিনকারা ভারতে প্রচুর পরিমানে ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

সর্বশেষেঃ
উপরোক্ত বিষয় গুলো ছাড়াও সিনকারা হাজারো রোগের সমস্যা সমাধান করে থাকে, যেমন মাথা ঘোরা, শরীর দূর্বল, অতিরিক্তি হার্ট স্পন্দন, রক্তচাপ, ষ্ট্রোক সমস্যা, চোখে ঝাপসা দেখা, সমঋতি শক্তি বৃদ্ধি সহ নানা রকমের সমস্যা তে সিনকারা ব্যবহৃত হয়।

Enjoyed this article? Stay informed by joining our newsletter!

Comments

You must be logged in to post a comment.

Related Articles